মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

 

চন্দনাইশ চট্টগ্রাম জেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ জনপদ। চন্দনাইশের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক প্রবাহমান। উপজেলার পূর্বাংশে বিস্তৃত এলাকাজুড়ে রয়েছে বৃক্ষে আচ্ছাদিত পাহাড় ও বনজ প্রকৃতি। কোন এক সময় এ অঞ্চল তথা দক্ষিণ চট্টগ্রাম বঙ্গোপসাগরের গর্ভে ছিল। প্রায় ২ হাজার বছর পূর্বে এ স্থানের উদ্ভব ঘটে। আরাকান মগ শাসনামলে এটি ছিল একটি সামুদ্রিক বন্দর।উপজেলার মুন্সেফ বাজারে বার্মা (বতর্মান মায়ানমার) এবং মধ্য প্রাচ্যেরবিভিন্ন দেশ হতে আগত বণিকেরা এ অঞ্চলে উৎপাদিত সুদৃশ্য ও সুগন্ধী চন্দনের আঁশযুক্ত কাঠের ব্যবসা করত। কথিত আছে চন্দন কাঠের নামানুসারে  এ অঞ্চলের নামকরণ করা হয় চন্দনাইশ। একদা চন্দনাইশ ছিল পটিয়া উপজেলার অবিচ্ছেদ্য অংশ।পটিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন করে ১৯৭৬ সালে চন্দনাইশ থানা জন্ম হয়।  ১৯৮৩ সালে চন্দনাইশকে উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়।কাঞ্চনাবাদ, জোয়ারা, বরকল, বরমা, সাতবাড়িয়া, বৈলতলী, হাসিমপুর, দোহাজারী ও ধোপাছড়িসহ ০৯টি ইউনিয়ন এবং চন্দনাইশ পৌরসভা নিয়ে এ উপজেলা গঠিত। উত্তরে পটিয়া ও রাঙ্গুনিয়া, দক্ষিণে সাতবাড়িয়া, পূর্বে বান্দরবান জেলা ও রাঙ্গুনিয়া এবংপশিচমে আনোয়ারা উপজেলা।এ উপজেলার আয়তন ২০১.৯৯ বর্গকিলোমিটার (৭৭.৯৯ বর্গমাইল)।

বনাঞ্চলের  লেবু ও আনারস এবং কাঞ্চননগরের পেয়ারা দেশময় পরিচিত। ব্রিটিশ শাসনামলে এক গভর্ণরের সদিচ্ছায় দক্ষিণ চট্টগ্রামে প্রথম ইরি চাষ হয় চন্দনাইশ এলাকাতেই।কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নে রয়েছে ‘পটিয়া টি গার্ডেন’। সাতবাড়িয়া ও দক্ষিণ জোয়ারায় উৎপাদিত ‘হাতপাখা’ তৈরির কুটির শিল্প, এবং উত্তর জোয়ারার কুমার পল্লীতে উৎপাদিত ‘হাঁড়ি-পাতিল তৈরির মৃৎশিল্প জন জীবনের চাহিদা পূরণে যথেষ্ট সহায়ক ভূমিকা পালন করছে।বন্য প্রাণির মধ্যে রয়েছে হাতি, হরিণ, মেছোবাঘ, বানর, হনুমান, শিয়াল বনমোরগ, ময়না ইত্যাদি।চাগাচর খান মসজিদ, জামিজুরী বধ্যভূমি, হাজারী দিঘি (দোহাজারী), খান জামেমসজিদ (বাগিচার হাট), সাতবাড়িয়া শান্তি বিহার, বরমার শুক্লম্বর দিঘী, জোয়ারার পাগলা গারদ ইত্যাদি। এছাড়া শঙ্খ নদী, চাঁনখালী উল্লেখযোগ্য।

খ্যাতিমান ব্যক্তিত্বদের মধ্যে রয়েছেন ভাষা সৈনিক প্রিন্সিপাল আবুল কাশেম, মাওঃমনিরুজ্জামান ইসলামাবাদী (রঃ), যতীন্দ্র মোহন সেন, এস.এম.সেন, জাতীয় অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম, কবি ও সাহিত্যিক আহমদ ছফা প্রমূখ।ইসলামী চিন্তাবিদগণের মধ্যে বার আউলিয়ার স্মৃতি বিজড়িত বিখ্যাত আলেম ওলামাহযরত শাহ আমিন উল্লাহ (রঃ), হযরত মোস্তান আলী শাহ (রঃ), হযরত হাফেজ আনছুরআলী (রঃ), হযরত আক্কেল আলী শাহ, গারাঙ্গীয়া দরবারের খলিফা- এ  পূণ্য ভূমিতে জন্মগ্রহণ করেন। 

তথ্যসূত্রঃ ১.  দেয়াঙ পরগণার ইতিহাস- মোঃ জামাল উদ্দিন

        ২.  চন্দনাইশ মনীষা

        ৩. টেলিফোন গাইড চন্দনাইশ-উপজেলা প্রশাসন

 

 

 

 

        ৪. স্থানীয় সাংবাদিক ও বিভিন্ন মাধ্যম হতে সংকলিত

 

 

সংযুক্তি

78459.docx 78459.docx